২ বছরের সামিন

২ বছরের সামিন

বি এ ভি এস মেটারনিটি ক্লিনিক,দুপুর ১ টা ৪৫ কি ২ টা,জন্ম আমার একমাত্র ভাগ্নে,নানা-নানির একমাত্র নাতি,পাপা-মা মুনির একমাত্র ছেলে,যাকে নাম দেওয়া হল সামিন আহনাফ আর কিছুদিন আগে ওর আকিকার সময় ও পেয়ে গেল আরো একটিনাম-মিনহাতুল্লাহ।আমরা সবাই ওকে  সামিন বলেই ডাঁকি।ওকে যখন কেউ জিজ্ঞেস করে-তোমার নাম কি?ও আগে বলত সামিন আর এখন ভাঙ্গা-ভাঙ্গা গলায় বলে মিনহাতুল্লাহ।আগে সামিন বলতে যেমন শিখাতে হয়েছিল এইবার আর শিখাতে হয় নাই এমনিতেই শিখে গেছে।অপরিচিত কাউকে দেখলেই ভেঙ্গে-ভেঙ্গে সালাম দেওয়া,হাঁচি দিয়ে আলহামদুলিল্লাহ বলা এগুলা ওকে কে যে শিখাইছে আল্লাহ জানে!

বয়স আর কত?আজকে ২ বছর ২ মাস ২১ দিন,আর এই বয়সেই দিব্যি গান গাওয়া,ওয়ান-টু-থ্রী,অ-আ,এক-দুই-তিন,আলিফ-বা-তা,অল্প অল্প যেন সব ই পারে!এখনি ওর খালা-মুনির গানের টিচার এলে ও হারমোনিয়ামের সাথে সাথে নিজেও গাইতে শুরু করে।মাঝে মাঝে সত্যি অবাক লাগে এই ছোট্ট ছেলে কিভাবে এত সব পারে,আমারা ওর সময়ে এসব কিছুই হয়ত পারতাম না।

কোথাও ঘুরতে নিয়ে গেলে ও যেভাবে ছোটা-ছুটি করে আশে পাশের লোকজন সবাই অবাক হয়ে তাকিয়ে থাকে।আর ও তখন তাদের দিকে এমন চিরচেনা ভঙ্গিতে চেয়ে থাকে যে তারা হাসতে বাধ্য হয়।

মাস কয়েক আগে ওকে একবার চিড়িয়াখানায় নিয়ে যাওয়া হল।শুধু বাচ্চারা কেন বড়রাও হাতিঁ দেখলে ভয় পায় আর ও হাতিঁর পিঠে চড়ে কয়েক বার ঘুরলো।ও বোঝেই না হাতি কে ভয় পেতে হয় কি না।

ও যদিও হাটতে,কথা বলতে কিছুটা দেরিতে শিখেছে তারপর ও কিভাবে যেন অল্প সময়ে অনেক বেশি ই শিখে ফেলেছে যা ওর বয়সে হয়ত অনেকেই পারে না।

ধীরে ধীরে বড় হচ্ছে আর দুষ্ট হচ্ছে।এখন আর কোনো কিছু বললে খুব সহজে শোনে না।চুল ছেঁড়া,চিমটি দেয়া এসব ও আগে করত না।মাঝে মাঝে বড়দের মত সবার নাম ধরে ডাকে অথবা ওর নিজের ইচ্ছে মত কাউকে নানা,কাউকে নানা ভাই আবার ওর চাচ্চুদের নামের পর চাচ্চু বলে ডাঁকা,বড়দের মত ফোনে কথা বলা এগুলা যে এই ছোট্ট বয়সে কিভাবে পারে ! হ্যা,এভাবেই ও বড় হচ্ছে……